বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

করোনাভাইরাসের লকডাউনের পর অন্যান্য সব দল যেখানে বড় পরিসরে অনুশীলনই শুরু করতে পারেনি, সেখানে রীতিমতো ব্যস্ত আন্তর্জাতিক সূচির প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। বুধবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইংলিশদের সিরিজ দিয়েই মাঠে ফিরবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট।

তিন ম্যাচের সেই টেস্ট সিরিজ শুরুর আগেই আরও দুই সিরিজের সূচি জানিয়েছে ইসিবি। সিরিজ দুইটি যথাক্রমে আয়ারল্যান্ড ও পাকিস্তানের বিপক্ষে। তিন টেস্ট ও তিন টি-টোয়েন্টি খেলতে এরই মধ্যে ইংল্যান্ডে পৌঁছে গেছে পাকিস্তান। তবে এই টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের আগে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তিনটি ওয়ানডে খেলবে ইংলিশরা।

সম্পূর্ণ দর্শকহীন গ্যালারিতে, বায়ো-সিকিউর পরিবেশে ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ড এবং সাউদাম্পটনের রোজ বোলে হবে আয়ারল্যান্ড ও পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ফরম্যাটের নয়টি ম্যাচ। যার শুরুটা আগামী ৩০ জুলাই আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে দিয়ে।

বলা বাহুল্য, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় টেস্ট ম্যাচ পুরো পাঁচদিন খেলা হলে সেটি শেষ হবে ২৮ জুলাই। অর্থাৎ মাঝে একদিন বিরতি দিয়েই আইরিশদের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খেলবে স্বাগতিকরা। এই সিরিজের নির্দিষ্ট সূচি জানানো হয়নি। তবে শেষ ম্যাচটি হবে ৪ আগস্ট। সবগুলো ম্যাচ খেলা হবে সাউদাম্পটনে।

এই ওয়ানডে সিরিজ শেষ হওয়ার ঠিক পরদিন অর্থাৎ ৫ আগস্ট ম্যানচেস্টারে শুরু হবে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। প্রথম টেস্ট ম্যানচেস্টারে খেলে পরের দুই ম্যাচের জন্য সাউদাম্পটনে চলে যাবে দুই দল। সেখানে ১৩ ও ২১ আগস্ট হবে সিরিজের শেষ দুই টেস্ট।

টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য আবার ম্যানচেস্টারে ফিরবে ইংল্যান্ড ও পাকিস্তান। ওল্ড ট্র্যাফোর্দের টি-টোয়েন্টি সিরিজের ম্যাচগুলো হবে যথাক্রমে ২৮ ও ৩০ আগস্ট এবং ১ সেপ্টেম্বর। খানিক ব্যস্ত সূচি হলেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মাঠে ফেরানোর জন্য সফলভাবে এ সিরিজগুলো আয়োজনের ব্যাপারে আশাবাদী ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ড।

ফাইভ-জি নিয়ে হুয়াওয়ে ঝুঁকিতে

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »