বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

১২ বছরে ১৪ বার ওয়াসার পানির দাম বাড়ানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দলের (মার্কসবাদী) সাধারণ সম্পাদক মুবিনুল হায়দার চৌধুরী। ওয়াসার পানির মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানিয়েছেন তিনি।

বুধবার (১ জুলাই) এক বিবৃতিতে তিনি এ দাবি জানান।

তিনি বলেন, ওয়াসা বছর না যেতেই আবারও পানির দাম শতকরা ২৫ ভাগ বাড়িয়েছে। প্রতি হাজার লিটার পানির দাম আগে ছিল ১১ টাকা ৫৭ পয়সা, এখন তা বেড়ে দাঁড়াবে ১৪ টাকা ৪৬ পয়সা। করোনার এই দুর্যোগকালীন সময়ে মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় মেটাতে নাভিশ্বাস উঠছে, তখন এই মূল্যবৃদ্ধি ‘মরার ওপর খাঁড়ার ঘা’ স্বরূপ। ওয়াসার সরবরাহকৃত পানি সবক্ষেত্রে নিরাপদ নয়। সেবার মান না বাড়িয়ে বছর বছর দাম বাড়ানো হয়।

তিনি বলেন, বিগত ১২ বছরে ১৪ বার মূল্যবৃদ্ধি করা হয়েছে। গত বছরের সেপ্টেম্বরের পানির মূল্য শতকরা ৫ ভাগ বাড়ানো হয়েছিল। ওয়াসা আইনে বছরে অনধিক মূল্য শতকরা ৫ ভাগ বাড়ানোর বিধান থাকলেও তা লঙ্ঘন করা হয়েছে। ফলে এ মূল্যবৃদ্ধি বেআইনি ও অযৌক্তিক।

মবিনুল হায়দার আরও বলেন, জনগণকে জীবনধারণের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় এ পরিষেবা থেকে বঞ্চিত করে সরকার এডিবি’সহ (অউই) তথাকথিত সাম্রাজ্যবাদী দাতা সংস্থাসমূহের পরামর্শে এ মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানকে বেসরকারীকরণের সুদূরপ্রসারী চক্রান্ত ছাড়া কিছু নয়।

তিনি অবিলম্বে ওয়াসার পানির মূল্যবৃদ্ধির এ গণবিরোধী সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানান।

লন্ডন গেলেন অর্থমন্ত্রী

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »