বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

দেশের শীর্ষ স্থানীয় ইলেকট্রিক এন্ড ইলেকট্রনিকস পণ্য সামগ্রী প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান মার্সেল-এর এসি (এয়ার কন্ডিশনার) কিনে আরেকটি এসি জিতেছেন গাজীপুর সদর উপজেলার মেম্বারবাড়ী এলাকার জিয়াউর রহমান।

তিনি মার্সেল ডিজিটাল ক্যাম্পাইন- ২০২০, সিজন-৭ এ এসি বিজয়ী। আধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উৎকর্ষতার এই যুগে মার্সেল এসি কিনে এবং আরেকটি এসি বিজয়ী হয়ে জিয়ারউর রহমান খুবই খুশি।

শনিবার (২৭ জুন) বিকেলে সদর উপজেলার ভবানীপুর মেম্বারবাড়ী এলাকায় মার্সেলের ‘নাবিল ইলেকট্রনিস’ শো রুম থেকে অনুষ্ঠানিকভাবে জিয়াউর রহমানের হাতে পুরস্কারের এসি তুলে দেওয়া হয়।

ক্লিক করে আমাদের সাথে থাকুন

এসময় মার্সেল (সেলস) এর ডেপুটি ডিরেক্টর তৈয়বুর রহমান খান, গাজীপুর জোনের এরিয়া ম্যানেজার নূরুল আমীন, নাবিল ইলেকট্রনিক্সের স্বত্বাধীকারী মো. নাজমুল আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এসি বিজয়ী জিয়াউর রহমান গাজীপুর সদর উপজেলার মেম্বারবাড়ী এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা। তিনি জানান, তার অফিস রুমের জন্য গত ২১ জুন নাবিল ইলেকট্রনিস থেকে একটি এক টনের এসি কেনেন। পরের দিনই (২২ জুন) তার মোবাইলে আরেকটি এসি বিজয়ী হওয়ার ম্যাসেজ আসে। পাশাপাশি ওই শো রুমের স্বত্বাধীকারী মো. নাজমুল আহমেদ তাকে ফোন করে এসি বিজয়ী হওয়ার বিষয়টি জানান।

জিয়াউর রহমান বলেন, ‘এসি বিজয়ী হওয়ায় আমার পুরো পরিবার খুশি।’

মার্সেল-এর গাজীপুর জোনের এরিয়া ম্যানেজার নূরুল আমীন জানান, আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন ২০২০ সিজন- ৭ এ এসি কিনে জিয়াউর রহমান পণ্য রেজিস্ট্রেশন এর মাধ্যমে একটি এক টন এসি ফ্রি পেয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘মার্সেল ইনভাটার এসিতে রয়েছে ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার টেকনোলজি। যা শতকরা ৬০ ভাগ পর্যন্ত বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী এবং সর্বনিম্ন ১৪০ ভোল্টজে চলতে সক্ষম। মার্সেল এসি নিয়ন্ত্রিত মাত্রায় নেগেটিভ আয়ন জেনারেট করে। এই নেগেটিভ আয়ন ঘরের বাতাসের ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফেলে ধোঁয়া ও দুর্গন্ধমুক্ত করে ঘরের বাতাসকে বিশুদ্ধ করে।

মার্সেল এসিতে রয়েছে ওয়াইট ভোল্টেজ রেঞ্জ। মার্সেল ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার এসিতে ভোল্টেজ রেঞ্জ ১৪০ ভোল্ট থেকে ২৬৪ ভোল্ট। এই এসিতে সাইলেন্ট অপারেশন, ফার্স্ট কুলিং/টারবো, গোল্ডেন ফিনসহ আরো অনেক সুবিধা থাকায় বাজারে সেরা এবং সর্বাধিক বিক্রিত এসি মার্সেল।

ধর্ষণচেষ্টা: শ্রমিক লীগ নেতা কারাগারে

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »