বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

যে ত্রাস নিয়ে করোনাভাইরাস মানুষকে আক্রমণ করেছে, তার চেয়েও দ্রুতগতিতে ভুক্তভোগী, বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন বলিউড অভিনেতা সনু সুদ।

ভারতে লকডাউন চলা অবস্থায় বাস্তব জীবনের নায়ক হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন সনু। মানুষকে সহায়তা করে কয়েকদিন পরপরই তাকে পাওয়া গেছে সংবাদপত্রের পাতায়। কয়েকদিন আগে কেরালায় আটকে পড়া ১৭৭ জন মেয়েকে বিমানে করে তাদের বাড়ি ভুবনেশ্বরে পৌঁছে দিয়েছেন। পরযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফিরতে সহায়তা করেছেন বাসের ব্যবস্থা করে, নয়তো ট্রেনের টিকিট কেটে দিয়ে।

সনু মানুষকে সহায়তা করতে রীতিমতো একটা দল গঠন করেছেন। টোল-ফ্রি একটা কল সেন্টার চালু করেছেন। সাধারণ মানুষ তার সঙ্গে সহজেই যোগাযোগ করতে পারছেন, তিনি সাধ্যমতো সবাইকে জবাব দিচ্ছেন। একজন গর্ভবতী নারীকে উদ্ধারে কাজ করেছেন সনু, সেই নারী এই মানবিকতার প্রতিদানে নিজের সদ্যজাত সন্তানের নাম রেখেছেন সনু সুদ।

বস্তুবাদী দুনিয়াতে পণ্য, টাকাই এখন নির্ণায়ক। মানবিক ভাবনা, ত্যাগের ধারণা পেছনের আসনে চলে গেছে। সনু সেখানে ব্যতিক্রম হয়ে দেখালেন। ইশো-উপনিষদের ত্যাগের বাণী সম্ভবত তিনি মনেই রাখেননি, নিজের ব্যক্তিজীবনে চর্চাও করেন। তার অবদান অনেক মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়েছে, সনু ঈশ্বরকে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন মানুষের আনন্দের উৎস হওয়ার সুযোগ পেয়ে।

ব্যাপারটা এমন নয় যে বলিউড তারকাদের মধ্যে সনু একাই মহামারীতে দুর্দশাগ্রস্ত মানুষকে সহায়তা করছেন। অক্ষয় কুমার কোটি কোটি টাকা অনুদান দিয়েছেন। অনেক শিল্পপতি দান করছেন। এছাড়া সমাজের আরো অনেক ক্ষেত্রের সামর্থ্যবান মানুষরা এগিয়ে এসেছে। কিন্তু তাদের এসব উদ্যোগে মানবিক স্পর্শের দিকটি দেখা যায় না। সরকারের ঘোষণা করা বড় বড় প্যাকেজের চেয়ে ক্ষুধার্ত, খালি পায়ে থাকা মানুষ খুশি হয় তাকে সরাসরি একটু খাবার দিলে কিংবা এক জোড়া চপ্পলের ব্যবস্থা করে দিলে। সনু মানবিকতার একটি উদাহরণ দেখিয়েছেন, যেখান থেকে অন্যদের শেখার আছে।

সনু যেভাবে মানুষের সহায়তায় এগিয়েছেন, তাতে প্রমাণ হয় আনুষ্ঠানিক শিক্ষার চেয়ে মানুষ অনেক বড়। তিনি দেখিয়েছেন তার শিক্ষা শরীর, মন ও আত্মাজুড়ে বিস্তৃত। হয়তো এবার করোনাভাইরাসের মহামারী শেষ হলে সনু সুদকে বড় পর্দায় আরো বড় বড় চরিত্রে দেখা যাবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »