বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

নাচতে না জানলে উঠোন বাঁকা। বিরাট কোহলির নালিশকে এমনই মনে করছেন ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপজয়ী অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। তার আত্মজীবনীতে গত ওয়ানডে বিশ্বকাপের প্রসঙ্গ টানতে গিয়ে ভারতীয় অধিনায়ককে রীতিমত ধুয়ে দিয়েছেন স্টোকস।

২০১৯ বিশ্বকাপে গ্রুপপর্বে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচটি ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ ছিল ইংল্যান্ডের জন্য। টানা দুই ম্যাচে শ্রীলঙ্কা আর অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে কোণঠাসা হয়ে পড়েছিল স্বাগতিকরা। এজবাস্টন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ভারতের বিপক্ষে ৩১ রানের জয়ে ফের মাটি খুঁজে পায় ইয়ন মরগানের দল।

ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে জনি বেয়ারস্টোর ১০৯ রানের ইনিংসে ৩৩৭ রানের পাহাড় গড়েছিল ইংল্যান্ড। বেন স্টোকসও খেলেন ৫৪ বলে ৭৯ রানের বিধ্বংসী ইনিংস।

জবাব লোকেশ রাহুলকে হারিয়ে শুরুতেই ধাক্কা খেয়েছিল ভারত। পরে অবশ্য রোহিত শর্মার সেঞ্চুরিতে আশা জেগেছিল তাদের। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। ৩০৬ রানেই আটকে যায় ভারতের ইনিংস।

ওই ম্যাচের পর পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে ওঠে ছোট মাঠের দোষ ধরেছিলেন কোহলি। বলেছিলেন, ‘টসটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। বিশেষ করে যে বাউন্ডারি এখানে, খুবই ছোট। প্রথমবারের মতো আমাদের এমন অভিজ্ঞতা হলো। যেখানে ব্যাটসম্যানরা রিভার্স সুইপ খেললেও ৫৯ মিটার বাউন্ডারিতে ছক্কা হয়ে যায়, সেখানে আসলে স্পিনারদের করার কিছু থাকে না। তাদের অনেক কৌশলী হতে হয়েছে বোলিং লাইন নিয়ে, একদিকে ছোট বাউন্ডারি থাকায় রান আটকানো কঠিন ছিল।’

কোহলির সেই কথা নিয়েই তার আত্মজীবনী ‘বেন স্টোকস অন ফায়ার’-এ সমালোচনায় মাতলেন স্টোকস। এজবাস্টনের মাঠ নিয়ে ভারতীয় অধিনায়ক যে অভিযোগ তুলেন, একজন অধিনায়ক হিসেবে সেটি ‘সবচেয়ে বাজে নালিশ’ ছিল বলে মনে করছেন ইংলিশ অলরাউন্ডার।

তিনি আত্মজীবনীতে লিখেছেন, ‘ম্যাচের পর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ভারতীয় অধিনায়ক কোহলি যেভাবে বাউন্ডারির আকার ছোট বলে ঘ্যানঘ্যান করছিল, শুনে বেশ অদ্ভূত লেগেছে। কোনো ম্যাচের পর এমন উদ্ভট নালিশ আমি শুনিনি। জীবনে এর চেয়ে বাজে অভিযোগ আসলে আর হতে পারে না।’

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »