বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

পৃথিবীর অনেক জায়গা, স্থাপনা, কার্যালয়ে পুরুষদের প্রবেশ নিষেধ হতে পারে। তা বিভিন্ন কারণেই হতে পারে। তবে পুরো একটি দ্বীপে শুধু নারীরাই ভ্রমণ করতে পারবেন। সেখানে পুরুষদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। অসম্ভব মনে হলেও কথাটি সত্যি।

জানা যায়, ফিনল্যান্ডের সমুদ্র উপকূলে একটি দ্বীপ আবিষ্কার করেছিলেন ক্রিশ্চিয়ানা রোথ নামে এক মার্কিন তরুণী। তিনি বাল্টিক সাগরের সবুজ-নীল জলের ওপর জেগে থাকা এ ভূখণ্ডটির নাম দিয়েছিলেন ‘সুপারসি’।

তখনই মনে মনে পরিকল্পনা করেছিলেন যে, দ্বীপটিকে শুধু নারীদের জন্য তৈরি করবেন। এখানে কোনো পুরুষ প্রবেশ করতে পারবে না। পরিকল্পনা মতোই কাজ শুরু করে দেন। সবুজে ঘেরা ছোট্ট দ্বীপটিতে তিনি তৈরি করেন একটি রিসোর্ট।

যেখানে থাকতে পারবেন শুধু নারীরাই। সেখানে তারা একেবারে স্বাধীন আর মুক্ত ভাবে ঘুরে বেড়াতে পারবেন। রিসোর্টের নামে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি কমিউনিটিও তৈরি করেন ক্রিশ্চিয়ানা। তার নাম রেখেছেন ‘সুপারসি কমিউনিটি’।

তবে এমন চিন্তা-ভাবনা সম্পর্কে ক্রিশ্চিয়ানা জানান, সব সময় পুরুষ সঙ্গীকে নিয়ে বেড়াতে যেতে হবে, এমন বাধ্যবাধকতায় তিনি বিশ্বাসী নন। নিরাপত্তার কারণে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নারীরা পুরুষদের সঙ্গে বেড়াতে যেতে বাধ্য হন।

এমন পরিস্থিতিতে নারীদের মুক্ত করতেই এ দ্বীপের চিন্তা-ভাবনা। এখানে নারীরা যা খুশি করতে পারেন। নানা পরিস্থিতির চাপে অনেক সময় নিজের মনের ইচ্ছা তারা চেপে যান। ‘সুপারসি’ নারীদের সে সব ইচ্ছা পূরণের সুযোগ করে দেয়।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »