বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

বিদ্যুৎ এবং পানির অযৌক্তিক মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছির ও সমাবেশ করেছে গণতান্ত্রিক বামজোট। রোববার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ বিক্ষোভ সমাবেশ পালন করে তারা। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুরানা পল্টনে গিয়ে শেষ হয়।

বামজোটের কেন্দ্রীয় নেতা ও বাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাজেকুজ্জামান রতনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সিপিবির সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকী, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার, বাসদের (মার্কসবাদী) মানস নন্দী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির আকবর খান, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক শহীদুল আলম সবুজ, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের হামিদুল হক।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, পিডিবি ও ওয়াসা দুটোই রাষ্ট্রীয় সেবামূলক প্রতিষ্ঠান। কিন্তু এখন তা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। দুটো প্রতিষ্ঠানই লাভজনক এবং তারা মুনাফা করছে। সকল নিয়মনীতি ভঙ্গ করে ঢাকা ওয়াসা গত ১২ বছরে ১৩ বার এবং পিডিবি গত ১০ বছরে ৮ বার মূল্য বৃদ্ধি করেছে। জনগণের ট্যাক্স ও করের টাকায় পরিচালিত প্রতিষ্ঠান দু’টির দায়িত্ব জনগণকে সেবা দেয়া, মুনাফা করা নয়। সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে পিডিবি ও ওয়াসার এই মূল্যবৃদ্ধি সম্পূর্ণ অযৌক্তিক ও অনৈতিক। কিন্তু সেবা দেয়ার পরিবর্তে তারা এখন মুনাফালোভী প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। বিদ্যুৎ ও পানির মূল্যবৃদ্ধি শুধু সাধারণ আয়ের মানুষের জীবনে নাভিশ্বাস তুলবে তা নয়, কৃষি ও শিল্পক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাবও ফেলবে।

জনগণ একদিকে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি, ব্যাংক আমানতে মুনাফার হার হ্রাস, শেয়ারবাজার ধস, বাড়িভাড়া বৃদ্ধিতে হাসফাস করছে এর ওপর বিদ্যুৎ-পানির মুল্য বৃদ্ধি জনগণের জন্য মরার উপর খাড়ার ঘা হিসেবে আবির্ভূত হবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »