বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

শিশু জন্মের পর কমপক্ষে ছয় মাস বুকের দুধ খাওয়ানো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বুকের দুধে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা, যা শিশুর স্বাস্থ্যকে ভালো রাখতে কাজ করে। তবে শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানো কেবল তার জন্যই উপকারী নয়, এটি মায়ের জন্যও বেশি জরুরি। এর ফলে মায়ের সঙ্গে শিশুর মানসিক সংযুক্তি তৈরি হয়। ভারতীয় ওয়েব সাইট টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর ১০ উপকারিতার কথা।

১. শিশুকে স্তন পান করানো প্রসব পরবর্তী জটিলতা থেকে মায়ের শারীরকে পুনরুদ্ধার করতে সাহায্য করে।

২. বুকের দুধ খাওয়ানো গর্ভকালীন ধকল থেকে মায়ের জরায়ুকে দ্রুত সুস্থ হতে সাহায্য করে।

৩. বুকের দুধ খাওয়ানো প্রসব পরবর্তী রক্তপাতকে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করে।

৪. ঋতুস্রাবের চক্রকে ঠিক রাখতে সাহায্য করে।

৫. বুকের দুধ খাওয়ানো খুব আবেগীয় একটি বিষয়। এটি মায়ের সঙ্গে শিশুর মানসিক সংযুক্তি বাড়ায়। পাশাপাশি শিশুটির সঙ্গে বন্ধন দৃঢ় করতে একটি সুন্দর পথ তৈরি করে।

৬. মায়ের মধ্যে ইতিবাচক বোধ তৈরি করে।

৭. বোতলে দুধ খাওয়ানোর প্রস্তুতির ঝামেলা থেকে মুক্ত থাকা যায়। যেমন : বোতল ধোয়া, দুধ ঠিক মতো বানানো ইত্যাদি।

৮. বাইরের দুধ বা টিনজাত দুধ খাওয়ানো ব্যয় বাড়িয়ে দেয়।

৯. বুকের দুধ খাওয়ানো স্তন এবং জরায়ুর ক্যানসার প্রতিরোধে সাহায্য করে।

১০. বুকের দুধ খাওয়ানো প্রসব পরবর্তী সময়ে মায়ের ওজন কমাতে সাহায্য করে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »