বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

ক্রিকেটের ২০১৯ সালটা ছিলো পুরোপুরি হ্যাটট্রিকের বছর। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১০টিসহ অন্তত ১৯টি হ্যাটট্রিকের দেখা মিলেছিল গত বছরে। নতুন বছরটা যেনো ছাড়িয়ে যেতে চায় আগেরটিকেও। তাই তো বছরের অষ্টম দিনেই দেখা মিলেছে এক জোড়া হ্যাটট্রিকের।

বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের নজর যখন পাকিস্তান সফর বিষয়ক আলোচনা ও বঙ্গবন্ধু বিপিএলের দিকে, তখনই অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট বিগ ব্যাশ লিগে একই দিনে জোড়া হ্যাটট্রিক করেছেন আফগানিস্তানের রশিদ খান ও পাকিস্তানের হারিস রউফ।

সিডনি সিক্সার্সের বিপক্ষে পরপর তিন বলে জেমস ভিন্স, জ্যাক এডওয়ার্ডস ও জর্ডান সিল্ককে সাজঘরে পাঠিয়েছেন অ্যাডিলেইড স্ট্রাইকার্সের হয়ে খেলা রশিদ। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এটি তার তৃতীয় হ্যাটট্রিক। অর্থাৎ হ্যাটট্রিকের হ্যাটট্রিক পূরণ করেছেন আফগান রশিদ খান।

এই ফরম্যাটে তার প্রথম হ্যাটট্রিক ছিল ২০১৭ সিপিএলে গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের হয়ে জ্যামাইকা তালাওয়াহসের বিপক্ষে। অন্য হ্যাটট্রিক হয়েছিল গত ফেব্রুয়ারিতে, আফগানিস্তান জাতীয় দলের হয়ে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে। সেবার আবার টানা ৪ বলে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন রশিদ।

হ্যাটট্রিকের হ্যাটট্রিক তথা তিনবার হ্যাটট্রিক করা চতুর্থ বোলার হলেন আফগান লেগস্পিনার রশিদ খান। তার আগে তিনটি করে হ্যাটট্রিক করেছেন ভারতের লেগস্পিনার অমিত মিশ্র, অস্ট্রেলিয়ার পেসার অ্যান্ড্রু টাই ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেল। তাদের সঙ্গে এবার নাম লেখালেন রশিদ খান।

আফগান লেগির হ্যাটট্রিকের পরের ম্যাচে একই কীর্তি গড়েন মেলবোর্ন স্টারসের পাকিস্তানি পেসার হারিস রউফ। সিডনি থান্ডারের বিপক্ষে ইনিংসের শেষ ওভারে ম্যাথু গাইকস, ক্যালাম ফার্গুসন ও ড্যানিয়েল স্যামসকে সাজঘরে পাঠান তিনি। বিগব্যাশে পাকিস্তানের কোনো বোলারের প্রথম হ্যাটট্রিক এটি।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »