স্টাফ রিপোর্টার »

চীনের জিংজিয়াং প্রদেশে উইঘুর মুসলিমদের নির্যাতন নিয়ে সরব হওয়ায় এবার আর্সেনালের জার্মান তারকা মেসুত ওজিলের ওপর খেপেছে চীন। ওজিলের মন্তব্যের জেরে চীনে আর্সেনালের খেলা সম্প্রচারও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে গত রোববার ছিল আর্সেনাল বনাম ম্যানচেস্টার সিটির হাইভোল্টেজ লড়াই। সেই ম্যাচটি দেখতে পারেননি চীনের ফুটবলপ্রেমীরা। চীনে থাকা আর্সেনাল ভক্ত-সমর্থকরা ভবিষ্যতেও আর খেলা দেখতে পারবেন কি না, সেটা নিয়ে দেখা দিয়েছে সংশয়।

তুর্কি বংশোদ্ভূত জার্মানির সাবেক ফুটবলার ওজিল সম্প্রতি চীনে নির্যাতনের শিকার উইঘুর মুসলিমদের নিয়ে মুখ খুলেন। ১৩ ডিসেম্বর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে তিনি চীনের উইঘুর মুসলিমদের ‘নির্যাতনের প্রতিরোধকারী যোদ্ধা’ বলে প্রশংসা করে চীনের কঠোর সমালোচনা করেন। পাশাপাশি, উইঘুরে নির্যাতিত মুসলমানদের রক্ষায় মুসলিম বিশ্ব কেন এগিয়ে আসছে না, সে জন্য হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন ওজিল।

আর্সেনালের এই সুপারস্টার লেখেন, ‘পূর্ব তুর্কিস্তানে কোরআন আগুনে জ্বালানো হচ্ছে, মসজিদে তালা দেওয়া হচ্ছে, মাদ্রাসা বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে, হত্যা করা হচ্ছে মুসলিমদের এবং যুবকদের বন্দি করে দাসত্বের সম্মুখীন করা হচ্ছে।’

এসবের পরও এই ঘটনার প্রতিবাদে মুসলিম বিশ্বের নীরবতায় অবাক মেসুত ওজিল। উইঘুর মুসলিমদের ওপর চীনাদের নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে তিনি বলেন, ‘মুসলিম ঘর থেকে পুরুষদের সেনাছাউনিতে বন্দি করে রেখে প্রতিটি পরিবারের অন্তত একটি মেয়েকে জোরজবরদস্তি করে বিয়ে দেওয়া হচ্ছে একজন কমিউনিস্ট পুরুষের সঙ্গে।’

এরপর উইঘুর মুসলিমদের জন্য দোয়া করে ওজিল লেখেন, ‘হে মহান প্রতিপালক! পূর্ব তুর্কিস্তানে আমাদের উইঘুর ভাইদের সঙ্গে থাকো…।’

প্রসঙ্গতঃ বিশ্বের মানবাধিকার সংস্থাগুলি বলছে, উইঘুরে মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রায় ১০ লাখ মানুষকে কোনও বিচার ছাড়াই কড়া নিরাপত্তায় বিশেষ ক্যাম্পে আটকে রেখেছে চীন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »