বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

আক্রান্ত গাছে প্রথমে কচি ফলের নিচের দিকে পঁচন দেখা দেয়। ধীরে ধীরে পুরো ফলটিই পঁচে যায় । সাধারণত আম্লীয় মাটিতে বা ক্যালসিয়ামের অভাব আছে এমন জমিতে এ রোগ দেখা যায়।

প্রতিকার :

১. ক্ষেতে পরিমিত সেচ দেয়া ।
২. গর্ত বা পিট প্রতি ৫০ থেকে ৮০ গ্রাম জিপসাম সার প্রয়োগ করা ।

পরবর্তীতে যা যা করবেন না

১. একই জমিতে বার বার একই সবজি আবাদ করবেন না
২. জমিতে শতাংশ প্রতি চার কেজি হারে ডলোচুন প্রয়োগ করলে পরপর আর তিন বছর প্রয়োগ করতে হবেনা।

পরবর্তীতে যা যা করবেন

১. অম্লীয় বা লাল মাটির ক্ষেত্রে জমিতে শতাংশ প্রতি চার কেজি হারে ডলোচুন প্রয়োগ করা
২. মাটি পরীক্ষা করে জমিতে সুষম সার ব্যবহার করা।

সতর্কতা: অনেক সময় ফলের মাছি পোকার আক্রমণেও এরকম পঁচন দেখা যায়। সে ক্ষেত্রে আক্রান্ত ফলটি কাটলে কীড়া দেখতে পাওয়া যায়।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »