বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি অযৌক্তিক

চাহিদার তুলনায় উৎপাদন বেশি হলে কেন বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হবে, এমন প্রশ্ন বিএনপির। বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধিকে দলটির পক্ষ থেকে অযৌক্তিক বলে দাবি করা হয়েছে।

বিদ্যুতের দাম বাড়ানো নিয়ে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) যে গণশুনানির আয়োজন করেছে তাতে বিএনপির দুই সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল অংশ নেবেন। আর এ ইস্যুতে দলের মনোভাব গণশুনানিতে তুলে ধরবেন তারা।

বুধবার বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবীর খান এ তথ্য জানিয়েছেন।

শায়রুল বলেন, বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) সকাল ১০টায় বিদ্যুতের দাম বাড়ানো নিয়ে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন যে গণশুনানির আয়োজন করেছে, সেখানে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালের নেতৃত্বে দুই সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল যোগ দেবেন। অন্যজন দলের প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এবিএম মোশাররফ হোসেন।

বিষয়টি নিয়ে অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, বিদ্যুতের মূল্য বাড়ানোর কোনো যৌক্তিকতা নাই। সরকার বেসরকারি খাতে অতীতে যে ইনডেমনিটি (দায়মুক্তি) দিয়েছে সেই ইনডেমনিটির আড়ালে এবং কুইক রেন্টালের আড়ালে হাজার হাজার কোটি টাকা তাদেরকে সুবিধা দেয়া হচ্ছে।

এটা কাভার (ঢাকার) করার জন্য সাধারণ মানুষের ওপর চাপিয়ে দিয়ে তারা বার বার বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি করছে। দেশব্যাপী বিদ্যুতের চাহিদা হলো ৮ হাজার মেগাওয়াট থেকে ১২ হাজার মেগাওয়াট। সরকার উৎপাদন ক্ষমতা দেখাচ্ছে এখন ২২ হাজার মেগাওয়াট, তারপরও বিদ্যুতের দাম কেন বাড়ানো হবে? এগুলো নিয়ে আমরা কালকে কথা বলব।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »