লেনদেন কমেছে সূচক বেড়েছে

স্টাফ রিপোর্ট

বড় দরপতনের একদিন পরেই বুধবার (৬ জানুয়ারি) শেয়ারবাজারে মূল্য সূচকের উত্থান হয়েছে। তবে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। অবশ্য মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) ১০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছিল। রেকর্ড লেনদেনের পরের দিনই তা কমে অর্ধেকে নেমে এসেছে।

এদিন শেয়ারবাজারে লেনদেনের শুরুতেই ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৫০ পয়েন্ট বেড়ে যায়।

তবে লেনদেন শুরু হওয়ার পর একের পর এক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমতে থাকে। এতে এক পর্যায়ে ডিএসইর প্রধান সূচক প্রায় ৫০ পয়েন্ট কমে যায়।

অবশ্য শেষ আধাঘণ্টায় বেশকিছু প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ায় ঘুরে দাঁড়ায় সূচক। ঋণাত্মক থেকে ধনাত্মক হয়ে পড়ে সবকটি মূল্য সূচক। এরপরও লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে।

দিনভর ডিএসইর লেনদেনে অংশ নেয়া ১৩০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ১৭১টি এবং ৭০টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এরপরও দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৩০ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৬৪০ পয়েন্টে উঠে এসেছে। ডিএসইর অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ আগের দিনের তুলনায় ২ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৮১ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১৩ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৭২ পয়েন্টে উঠে এসেছে।

মূল্য সূচকের উত্থান হলেও ডিএসইতে লেনদেন কমে প্রায় অর্ধেকে নেমে এসেছে। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৫৭৭ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ২ হাজার ৫৪৬ কোটি ৮২ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো শেয়ার। কোম্পানিটির ১৫৩ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেক্সিমকো ফার্মার ৯৯ কোটি ৩১ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৯৪ কোটি ১০ লাখ টাকার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স।

এছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- রবি, আইএফআইসি ব্যাংক, পাওয়ার গ্রিড, লাফার্জহোলসিম, জিবিবি পাওয়ার, অ্যাক্টিভ ফাইন্যান্স এবং ন্যাশনাল ব্যাংক।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএএসপিআই কমেছে ৩৮ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১০৮ কোটি ৮৬ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ২৬৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯৫টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৩৪টির এবং ৪০টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *