শেয়ারবাজার এবার টানা পতনে

স্টাফ রিপোর্ট

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচকের পতন হয়েছে। এর মাধ্যমে টানা দুই কার্যদিবস পতনের মধ্যে থাকল শেয়ারবাজার। এর আগে টানা চার কার্যদিবস ঊর্ধ্বমুখী ছিল শেয়ারবাজার।

মূল্য সূচকের পতনের পাশাপাশি দুই বাজারেই লেনদেনে অংশ নেয়া যে কয়টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে, কমেছে তার দ্বিগুণেরও বেশি। একই সঙ্গে লেনদেনের পরিমাণও কমেছে। এদিন লেনদেনের প্রথম আধাঘণ্টার মধ্যেই শেয়ারবাজারে পতনের আভাস পাওয়া যায়। লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় ৪০ মিনিটের লেনদেনে ডিএসইর প্রধান সূচক ২৫ পয়েন্ট পড়ে যায়।

তবে শেষদিকে কিছু প্রতিষ্ঠানের দাম বাড়ায় বড় পতনের হাত থেকে রক্ষা পায় সূচক। এতে দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১৫ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ১০৮ পয়েন্টে নেমে গেছে। এর মাধ্যমে টানা দুই কার্যদিবসের পতনে ডিএসইর প্রধান সূচক কমল ৩৯ পয়েন্ট। এরআগে টানা চার কার্যদিবসের উত্থানে সূচকটি বেড়েছিল ৭৭ পয়েন্ট।

ডিএসইর অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ আগের দিনের তুলনায় ৫ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ১৮০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৭৯৮ পয়েন্টে নেমে গেছে।

মূল্য সূচকের এই পতনের দিনে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ৯২ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ১৮৬টি এবং ৭৭টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৭০৫ কোটি ৬ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ৯৭২ কোটি ৪ লাখ টাকা। সে হিসেবে আগের দিনের তুলনায় লেনদেন কমেছে ২৬৬ কোটি ৯৮ লাখ টাকা।

টাকার অংকে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো শেয়ার। কোম্পানিটির ৪৫ কোটি ১৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেক্সিমকো ফার্মার ৪২ কোটি ৩৪ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ২৬ কোটি ৯৭ লাখ টাকার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে আইএফআইসি ব্যাংক।

এ ছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- ন্যাশনাল পলিমার, ডমিনেজ স্টিল বিল্ডিং, এস এস স্টিল, জেএমআই সিরিঞ্জ অ্যান্ড মেডিকেল ডিভাইজ, ওয়ালটন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স এবং নর্দান ইসলামী ইন্স্যুরেন্স।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএএসপিআই কমেছে ৫৩ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৫৮ কোটি ২৫ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ২৬৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৬৬টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৩৩টির এবং ৬৬টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *