বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মাঝেই সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে শ্রীলঙ্কার বিমান ধরার কথা ছিল জাতীয় দল এবং হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) দলের। সপ্তাহখানেক আগেও নিশ্চিত ছিল ২১ সেপ্টেম্বর এই সফরকে সামনে রেখে ব্যক্তিগত অনুশীলন বাদ দিয়ে তামিম ইকবাল-মুশফিকুর রহিমদের দলগত অনুশীলনও শুরু হবে।

লম্বা সময় পর বাংলাদেশের ক্রিকেট মাঠে ফেরা নিয়ে যে অপেক্ষা ছিল, তাতে দেখা দিয়েছিল শঙ্কা। যদিও সেই শঙ্কা দূর করতে আসন্ন সফরের আনুষ্ঠানিক স্বাস্থ্য নীতিমালা বিসিবিকে পাঠিয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি)। তবে সেখানে এসএলসি শর্ত বেঁধে দিয়েছে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের।

১২ অক্টোবর কোয়ারেন্টিন শেষে পাঁচ দিনের দলগত অনুশীলন করবে বাংলাদেশ- এমনটাও চেয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট। এরপর ১৮ অক্টোবর থেকে চারদিনের প্রস্তুতি ম্যাচ শেষে দুই দিনের বিশ্রামের পর ২৪ অক্টোবর টেস্ট সিরিজ শুরু করতে চেয়েছিল তারা। এসএলসি বিসিবিকে এমন শর্ত দিয়েছে।

যদিও এমন শর্তে রাজি নন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। আজ (১৪ সেপ্টেম্বর) শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। সভা শেষে মিডিয়াকে তিনি বলেন, ‘একটা বোর্ড সম্পর্কে যেটা জানি না সেই মন্তব্য করা ঠিকও না। যেটা জানি, এ রকম কন্ডিশন থাকলে আমরা জাচ্ছি না। আমরা যা ভেবেছিলাম তার ধারে কাছেও নেই অন্যান্য দেশের সঙ্গেও মিল নেই। হোটেলের রুম থেকে বের হওয়া যাবে না, খাওয়ার জন্য বের হতে পারবে না। নেট বোলার ওরাও দিবে না, আমাদেরও নিতে দিচ্ছে না এই অবস্থায় সফর কোনোভাবে সম্ভব না।’

এই সফরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিনটি টেস্ট খেলার কথা বাংলাদেশের। প্রথম দুটি টেস্ট ক্যান্ডিতে এবং শেষ টেস্ট কলম্বোতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »