বিজনেস২৪বিডি ডেস্ক »

ঝকঝকে দাঁত মানে সুন্দর হাসি। আর সুন্দর হাসি মানে আপনার সৌন্দর্য বেড়ে যাওয়া কয়েকগুণ। এই সৌন্দর্য ধরে রাখতে এবং সুস্থ দাঁতের জন্য নিয়মিত যত্ন নেয়া প্রয়োজন। দাঁতে নানা কারণেই দাগ হতে পারে। যত্নের অভাবে তো বটেই, ধূমপানেরও প্রভাবেও অনেকের দাঁতে দাগ পড়ে।

দাঁতে হলুদ বা কালো দাগ হয়ে যাওয়ার সমস্যায় ভুগলে তা দূর করার চেষ্টা করতে হবে। এক্ষেত্রে অনেকে ধূমপান বন্ধ করে দিয়েও তেমন সুফল পান না। ধূমপান এমনিতেই আমাদের শরীরের জন্য খারাপ। তাই এটি যত দ্রুত সম্ভব বাদ দেয়া উত্তম। এদিকে দাঁত ভালো রাখতে মেনে চলতে হবে কিছু ঘরোয়া প্রতিকার। এমনটাই প্রকাশ করেছে বোল্ডস্কাই।

বেকিং সোডা
দাঁতের দাগ দূর করতে বেকিং সোডা বেশ কার্যকরী। এক চা চামচ বেকিং সোডার সঙ্গে একটি পাতিলেবুর অর্ধেকটার রস মেশান। কিছুক্ষণ পরেই দেখবেন মিশ্রণটির আকার ঘন তরলের মতো হয়েছে। এবার এই তরল আঙুলে করে তুলে দাঁতের উপরে শুধু লাগিয়ে দিন, ঘষার প্রয়োজন নেই। মিনিট তিনেক পরে কুলকুচি করে মুখ ধুয়ে ফেলুন, দাঁতের দাগ দূর হবে।

লবণ
দাঁত পরিষ্কারের জন্য লবণ বেশ পরিচিত। লেবুর খোসায় এক চিমটি লবণ দিয়ে তা দাঁতে ঘষুন, এতে দাঁতের দাগ দূর হয়ে যাবে। লেবুতে ভিটামিন সি রয়েছে এবং লবণ ময়লা পরিষ্কার করে।

পোড়া কাঠকয়লা
আগে অনেকেই দাঁত পরিষ্কারের কাজে পোড়া কাঠকয়লা ব্যবহার করতেন। এই পদ্ধতি কাজে লাগাতে পারেন আপনিও। পোড়া কাঠকয়লা বা ঘুঁটের ছাই নিয়ে ভালো করে হাতে পিষে নিজের আঙ্গুলের সাহায্যে দাঁতে ঘষুন। দাঁত পরিষ্কার হবে।

হলুদ
হলুদের সঙ্গে সরিষার তেল এবং লবণ মিশিযে তা ব্রাশের মতো দাঁতে ঘষলে দাঁত পরিষ্কার হয়। দাঁতের দাগ দূর করার জন্য এই পদ্ধতি বেছে নিতে পারেন।

লবণ ও সরিষার তেল
লবণের মধ্যে ২-৩ ফোঁটা সরিষার তেল মিশিয়েও দাঁত পরিষ্কার করতে পারেন, এতে আপনার দাঁত ঝকঝক করবে।

গাজর
দাঁতের দাগ দূর করতে সাহায্য করে গাজর। কারণ এতে উপস্থিত ফাইবার দাঁত পুরোপুরি পরিষ্কার করে দেয়। এটি দাঁতের কোণার ময়লা দ্রুত দূর করতে সহায়তা করে। দাঁত পরিষ্কার রাখতে নিয়মিত গাজর খাওয়ার অভ্যাস করুন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »