সেমিকন্ডাক্টর খাতে প্রায় ১৯ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে কানাডা

স্টাফ রিপোর্টার

সেমিকন্ডাক্টরের উৎপাদন ও গবেষণা বাড়াতে এ শিল্পে ২৪ কোটি কানাডিয়ান ডলার বা ১৮ কোটি ৯০ লাখ ডলার বিনিয়োগ করবে কানাডা। দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নের জন্য এ বিনিয়োগ করা হবে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে। খবর গ্যাজেটস নাউ।

দেশটির বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও শিল্পমন্ত্রী ফ্রাঁসোয়া ফিলিপ শ্যাম্পেন ১৫ কোটি কানাডিয়ান ডলারের সেমিকন্ডাক্টর চ্যালেঞ্জ কলআউট ফান্ড চালু করেছেন। মূলত সেমিকন্ডাক্টরে সরবরাহ এবং উন্নয়নে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। অন্যদিকে কানাডার কানাডিয়ান ফটোনিকস ফ্যাব্রিকেশন সেন্টারের ন্যাশনাল রিসার্চ কাউন্সিলের জন্য আরো ৯ কোটি কানাডিয়ান ডলার বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। টেলিকমিউনিকেশন নেটওয়ার্কে ফটোনিকস ব্যবহার করা হয়। এক বিবৃতিতে ফ্রাঁসোয়া ফিলিপ বলেন, কানাডার সেমিকন্ডাক্টর খাতে বিনিয়োগের মাধ্যমে আমরা এ শিল্পে বিনিয়োগে আগ্রহী ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে আকর্ষণ করতে বদ্ধপরিকর। উচ্চমূল্য বা গণহারে উৎপাদন যেটাই হোক না কেন, আমরা কানাডাকে সেমিকন্ডাক্টর উৎপাদনে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্থান হিসেবে দেখতে চাই।

সেমিকন্ডাক্টর প্রায় সময় চিপ বা মাইক্রোচিপ নামে পরিচিত। দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহূত বিভিন্ন ডিভাইসে এটি ব্যবহার করা হয়। কভিড-১৯ মহামারীর কারণে সরবরাহ চেইনে সৃষ্ট সমস্যা এবং ভোক্তা ইলেকট্রনিকস পণ্যের জন্য উৎপাদনকারীদের চাহিদার কারণে গাড়ি থেকে স্মার্টফোন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেমিকন্ডাক্টর বা চিপ সংকটে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফলে অধিকাংশ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান বিশ্বস্ত সরবরাহ চেইনের সন্ধান শুরু করে।

শ্যাম্পেন বলেন, এ বিনিয়োগের লক্ষ্য হলো সেমিকন্ডাক্টর উৎপাদন খাতে কানাডার অবস্থান মজবুত করা। বর্তমানে এ খাতে দেশটির ১০০-এর বেশি অভ্যন্তরীণ ও বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান মাইক্রোচিপ তৈরির পাশাপাশি উন্নয়নে গবেষণা পরিচালনা করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.