মেসি-নেইমার-এমবাপেকে নিয়েও ড্র পিএসজির

স্টাফ রিপোর্ট

প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর হয়ে আগেই অভিষেক হয়েছিল লিওনেল মেসি। এবার উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগেও পিএসজির হয়ে মাঠে নামলেন তিনি। এ ম্যাচে পাশে পেলেন দলের অন্য দুই বড় তারকা নেইমার জুনিয়র এবং কাইলিয়ান এমবাপেকেও। কিন্তু তারকাখচিত ফরোয়ার্ড লাইন নিয়েও জয় পায়নি পিএসজি।

বুধবার রাতে ক্লাব ব্রুজের বিপক্ষে এমএনএম (মেসি-নেইমার-এমবাপে) ত্রয়ীকে শুরুর একাদশে রেখেই ম্যাচ শুরু করেছিলেন পিএসজি কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো। কিন্তু নিজের ছায়ায় আটকে ছিলেন মেসি, ছন্দ খুঁজে পাননি নেইমার-এমবাপেরাও। তাই ফলও আসেনি পিএসজির পক্ষে, ড্র দিয়ে শুরু হলো তাদের চ্যাম্পিয়নস লিগ যাত্রা।

ম্যাচের শুরুতেই গোল করেছিলেন এন্ডের হেররেরা। সেটিই শেষ পর্যন্ত পিএসজিকে এনে দিয়েছে একটি পয়েন্ট। তবে অ্যাওয়ে ম্যাচে হার এড়ানোয় ঘরের মাঠে আত্মবিশ্বাস নিয়েই মাঠে নামতে পারবে পিএসজি। ক্লাব ব্রুজের পক্ষে সমতাসূচক গোলটি করেছেন হান্স ভানাকেন।

ক্লাব ব্রুজের গ্যালারিতে এক দর্শকের হাতে প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিলো, ‘আমাদের দয়া করো, মেসি।’ জাদুকরী পারফরম্যান্সে ব্রুজকে ধরাশায়ী করবেন মেসি- এমন শঙ্কা থেকেই হয়তো প্ল্যাকার্ডটি এনেছিলেন সেই দর্শক। জাদুকরী পারফরম্যান্স দূরে থাক, নিজের স্বাভাবিক ছন্দময় খেলাও উপহার দিতে পারেননি মেসি।

উল্টো ম্যাচের ৭২ মিনিটের সময় হতাশা থেকে মাঝমাঠে ব্রুজের খেলোয়াড়কে ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখেন আর্জেন্টাইন জাদুকর। এর মিনিট দুয়েক আগে অবশ্য তার একটি জোরালো আক্রমণ প্রতিহত হয় ব্রুজের রক্ষণে। সেই হতাশা থেকেই ফাউলটি করেছিলেন বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

ম্যাচের শুরুতেই দলকে পিএসজিকে এগিয়ে দিয়েছিলেন হেররেরা। বাম পাশ দিয়ে আক্রমণে উঠেছিলেন এমবাপে। দুই ডিফেন্ডারকে পাশ কাটিয়ে বল এগিয়ে দেন ডি-বক্সে অপেক্ষায় থাকা হেররেরার উদ্দেশ্যে, নিখুঁত শটে বাকি কাজ সারেন এ মিডফিল্ডার। শুরুর গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি।

তবে বেশিক্ষণ লিডে থাকতে পারেনি তারা। ম্যাচের ২৭ মিনিটের সময় সমতা ফেরান ভানাকেন। তার শট পিএসজির এক ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে কিছুটা দিক বদলে জড়িয়ে যায় জালে। এর মিনিট দুয়েক পর মেসির শট ক্রসবারের ওপরের দিকে চলে যায় বাইরে। হতাশা বাড়ে পিএসজির।

পুরো ম্যাচে পিএসজির ওপর আধিপত্য বিস্তার করেই খেলেছে ক্লাব ব্রুজ। বল দখলের লড়াই ফ্রান্সের ক্লাবটি এগিয়ে থাকলেও, আক্রমণ করতে পারেনি তেমন। তাদের ৯টি প্রচেষ্টার মাত্র ৪টি ছিলো লক্ষ্যে। অন্যদিকে সারা ম্যাচে ১৬টি প্রচেষ্টার মধ্যে ৭টিই লক্ষ্যে রেখেছিল ব্রুজ। কিন্তু একটির বেশি গোল পায়নি কোনো দলই।

‘এ’ গ্রুপের অন্য ম্যাচে আরবি লাইপজিগকে ৬-৩ গোলের বড় ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে ইংলিশ জায়ান্ট ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *