মেসির জোড়া গোলে বার্সার দাপুটে জয়

আন্তর্জাতিক সূচির বিরতিতে পড়েছিলেন ইনজুরিতে, খেলতে পারেননি মরক্কোর বিপক্ষে আর্জেন্টিনার সবশেষ ম্যাচটি। তবে ইনজুরি কাটিয়ে মাঠে ফিরেই দুর্বার বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি। তার জোড়া গোলেই নগর প্রতিদ্বন্দ্বী এস্পানিওলকে ২-০ গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনা।

পুরো ম্যাচে বার্সেলোনা খেলেছে তাদের নিজেদের মতোই। বল দখলে ছিলো একচেটিয়া আধিপত্য, বারবার হানা দিয়েছে প্রতিপক্ষের রক্ষণে। কিন্তু চোখে পড়েছে ফিনিশিংয়ে দুর্বলতা। যে কারণে গোলবারের উদ্দেশ্যে ১৩টি শট করলেও, মাত্র ৩টি ছিলো লক্ষ্য বরাবর।

বার্সেলোনার মাঠে খেলতে এসে ম্যাচের পুরো প্রথমার্ধ এবং দ্বিতীয়ার্ধেরও প্রায় ৩০ মিনিট স্বাগতিকদের গোলবঞ্চিত করে রেখেছিল এস্পানিওল। তবে মেসির জাদুতে ধরাশায়ী হয়ে শেষ রক্ষা হয়নি বার্সেলোনার নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের।

গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর ম্যাচের প্রথম গোল পেতে দ্বিতীয়ার্ধেরও ২৬ মিনিট পর্যন্ত খেলতে হয় বার্সেলোনাকে। ডি-বক্সের ঠিক বাইরে মেসিকে ফাউল করা হলে ফ্রি-কিক পায় বার্সেলোনা। দুর্দান্ত এক ফ্রি-কিকে চলতি লিগে নিজের ৩০তম গোলটি করেন মেসি।

দশ মিনিট পরে সমতায় ফিরতে পারতো এস্পানিওল। তবে ক্লেমেন্ত লংলের অসাধারণ ডিফেন্ডিংয়ে বেঁচে যায় বার্সেলোনা। উল্টো ম্যাচের ৮৯তম মিনিটে আবারও মেসির গোলে ব্যবধান বাড়ায় তারা।

ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার ইভান রাকিটিচের লম্বা পাস থেকে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ম্যালকম এবং ম্যালকমের কাটব্যাক ধরে প্রথম ছোঁয়ায় জালে বল জড়ান মেসি। নিশ্চিত করেন দলের সহজ জয়।

২৯ ম্যাচে ২১ জয় ও ছয় ড্রয়ে টেবিলের শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার পয়েন্ট ৬৯। ১৩ পয়েন্ট পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে এক ম্যাচ কম খেলা অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। তৃতীয় স্থানে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের পয়েন্ট ৫৪।

Leave a Reply

Your email address will not be published.