চীনে চোরকে ধরিয়ে দিল মশা

স্টাফ রিপোর্টার

কোনো রহস্য উদঘাটন বা অপরাধী ধরতে সম্ভাব্য সব উপায় খুঁজে দেখে পুলিশ। কিন্তু মশার সূত্র ধরে অপরাধী শনাক্ত এটা নতুন এক কৌশল এবং অবাক করার মতো বিষয় বটে। তবে এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে চীনে।

দেশটিতে ক্ষুদ্র এই মশার সূত্র ধরেই রহস্যময় এক চুরির সমাধান করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে পাকড়াও করা হয়েছে চোরকে।

চীনের পুলিশ জানিয়েছে, মৃত দুই মশার রক্ত থেকে পাওয়া ডিএনএ নমুনার সূত্র ধরে ওই চোরকে আটক করা হয়।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের বরাতে বিবিসির খবরে বলা হয়, জুন মাসে চীনের ফুজিয়ান প্রদেশের ফুজো শহরে এক চোর একটি ভবনের তালা ভেঙে ফ্ল্যাটে ঢুকে মূল্যবান কিছু জিনিস নিয়ে পালিয়ে যান। পরে যখন অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ওই ফ্ল্যাটে যায়, তখন ভেতর থেকে দরজা বন্ধ ছিল ফ্ল্যাটের। এ থেকে পুলিশ ধারণা করে যে, চোর বারান্দা দিয়ে ফ্ল্যাটে প্রবেশ করে এবং সেখান দিয়েই পালিয়ে যায়।

শুধু তাই নয়, পালানোর আগে সেখানে আরামের সঙ্গে রাত্রি যাপন করেন। এমনকি নুডলস রান্না করে রাতের খাবারও খান।

ফুজো শহরের পুলিশ বলছে, ওই বাড়ির শোবার ঘরে লেপ মুড়ি দিয়ে ঘুমানোর সময় একটি মশার কয়েলও জ্বালিয়েছিল চোর। ওই কয়েলটি উদ্ধার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে সেখানে তারা দুইটা মৃত মশাও খুঁজে পায়। ওই ঘরের দেয়ালে মশার সঙ্গে তাজা রক্তের দাগও দেখা যায়।

পুলিশ বলছে, তদন্তের সময় তাদের ধারণা হয় যে, চোর যখন চুরি করছিল- তখন হয়তো এই দুইটা মশা তাকে কামড়েছিল। ফলে মশা দুটোকে দেয়ালে চেপ্টে মেরে ফেলেছে চোর।

পরে দেয়াল থেকে সেই রক্ত সংগ্রহ করে পুলিশ। তার ডিএনএ নমুনা বিশ্লেষণের জন্য পাঠানো হয় ল্যাবে। ওই নমুনার সঙ্গে তালিকাভুক্ত এক অপরাধীর ডিএনএ নমুনার মিল পাওয়া যায়।

এরপর অনেক চেষ্টায় ঘটনার ১৯ দিন পর তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে চুরির কথাও স্বীকার করেছেন ওই ব্যক্তি।

তিনি জানান, এই ঘটনা ছাড়াও ওই এলাকার আরও তিনটি বাড়িতে চুরি করেছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.