গম উৎপাদন ১০ কোটি টন ছাড়াতে পারে ভারতে

ভারত বিশ্বের তৃতীয় শীর্ষ গম উৎপাদনকারী দেশ। সর্বশেষ ২০১৭-১৮ মৌসুমে দেশটির ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি গম উৎপাদন হয়েছিল। চলতি ২০১৮-১৯ মৌসুমে এ রেকর্ড ছাপিয়ে ভারতে কৃষিপণ্যটির সম্মিলিত উৎপাদন ১০ কোটি টন ছাড়িয়ে যেতে পারে।

ভারতের এগ্রিকালচার কমিশনার এসকে মালহোত্রা এ সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন। মূলত চলতি মৌসুমের আবহাওয়া গম উৎপাদনের অনুকূলে থাকায় কৃষিপণ্যটির রেকর্ড উৎপাদনের সম্ভাবনা দেখছেন বিশ্লেষকরা। খবর বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড ও বিজনেস লাইন।

এদিকে মার্কিন কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) ফরেন এগ্রিকালচারাল সার্ভিসও এবারের মৌসুমে ভারতে ১০ কোটি টনের বেশি গম উৎপাদনের প্রাক্কলন করেছে। এর মধ্য দিয়ে ২০১৮-১৯ মৌসুমে ভারতের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি গম উৎপাদনের সম্ভাবনা দেখছে প্রতিষ্ঠানটি।

বিদায়ী বছরের ১ জুলাই থেকে ভারতে গম উৎপাদনের ২০১৮-১৯ মৌসুম শুরু হয়েছে। চলবে চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত। এসকে মালহোত্রা জানান, অনুকূল আবহাওয়া বজায় থাকায় ২০১৮-১৯ মৌসুমে ভারতে গমের সম্মিলিত উৎপাদন ১০ কোটি টন ছাড়িয়ে যাওয়ার জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে।

এর আগে ২০১৭-১৮ মৌসুমে ভারতে সব মিলিয়ে ৯ কোটি ৯৭ লাখ টন গম উৎপাদন হয়েছিল। ভারতের ইতিহাসে এটাই কৃষিপণ্যটির সর্বোচ্চ উৎপাদনের রেকর্ড। সে হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে ভারতে কৃষিপণ্যটির উৎপাদনে আগের রেকর্ড ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

কৃষকদের গম আবাদে আগ্রহী করে তুলতে বিভিন্ন ধরনের উদ্যোগ নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এর অংশ হিসেবে গমের ন্যূনতম সহায়তা মূল্য (এমএসপি) বাড়ানোর ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে এসকে মালহোত্রা বলেন, আগে প্রতি কুইন্টাল গমের এমএসপি ছিল ১ হাজার ৭৩৫ রুপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.