করোনা ভাইরাসের আক্রমনে চুল পড়া বৃদ্ধি পেতে পারে

স্টাফ রিপোর্ট

দেখা গেছে এই সংক্রমণ রোগের লক্ষণগুলির শীর্ষ ২৫ টির মধ্যে চুল পড়া অন্যতম যা রোগীর অসুস্থ হওয়ার প্রায় তিন মাস পর থেকে শুরু হতে পারে।

বৈজ্ঞানিক ভাবে জানা যায় যে, যখন রোগীর শরীরে ট্রমা শক বা অসুস্থতার কারণে প্রচুর পরিমানে চাপ পড়ে তখন অস্থায়ী চুল পড়ে যাওয়ার এই ঘটনাকে ‘টেলোজেন এফ্লুভিয়াম’ বলা হয়।

কোভিড ১৯ এর ক্ষেত্রে পরিপাকতন্ত্রের দুর্বল অবস্থা, ক্ষুধা কমে যাওয়া ইত্যাদি কারণে রোগীদের সঠিক পুষ্টি গ্রহণে বাধাপ্রাপ্ত হয় এবং শারীরিক দুর্বলতা বৃদ্ধি পায়। ভাইরাসটি শরীরে প্রচুর পরিমানে মানসিক ও শারীরিক চাপ তৈরি করে য চুল পড়ার অন্যতম কারন।

এখানে লক্ষনীয় যে শরীরে উচ্চতাপমাত্রা –জ্বর আমাদের চুল পড়া বাড়িয়ে দিতে পারে(পোস্ট ফিব্রাইল আলোপেসিয়া)। এছাড়া ভিটামিন ডি-৩ এবং ফেরিটিনের অভাবের কারণে কোভিড রোগীদের আরো বেশি পরিমানে চুলের ক্ষতি হতে পারে।

কি করবেন

চুল পড়ার বিষয়টি এই ক্ষেত্রে প্রধানত ‘অস্থায়ী’ এবং ট্রেসের মাত্রার উপর নির্ভরশীল। পর্যাপ্ত ঘুমানো এবং প্রয়োজনীয় পুষ্টির মাধ্যমে আপনার শরীরে যত্ন নিতে হবে। একজন চর্ম বিশেষজ্ঞের পরামর্শ অনুযায়ী চুলের স্বাস্থ্য পুনরুদ্ধার করতে ও চুল পড়া কমাতে ভিটামিন-ডি এবং আয়রন সেবন করা যেতে পারে।

লেখকঃ ডাঃ রুবাইয়া আলী, কনসালটেন্ট ডারমাটোলজিস্ট, এভারকেয়ার হসপিটাল, ঢাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *