ইরানের ৫২ স্থানে হামলার হুমকি ট্রাম্পের

ইরানের ৫২ স্থানে কঠোর হামলার হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, ইরান যদি আমেরিকানদের ওপর বা যুক্তরাষ্ট্রের কোনো সম্পদ লক্ষ্য করে হামলা চালায় তবে তেহরানের ৫২ স্থানে ভয়াবহ হামলা চালানো হবে। খবর আল জাজিরার।

শুক্রবার ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে যুক্তরাষ্ট্রের এক হামলায় ইরানের কুর্দস বাহিনীর ক্ষমতাধর জেনারেল কাসেম সোলেইমানি এবং এক ইরাকি মিলিশিয়া প্রধান নিহত হন। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইরান হামলা চালাতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই পাল্টা হুমকি দিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

সাম্প্রতিক সময়ে জেনারেল সোলেইমানিকে হত্যার ঘটনায় ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হয়েছে। শনিবার তার প্রথম জানাজা সম্পন্ন হয়। তার জানাজার কয়েক ঘণ্টা পরেই বাগদাদে কয়েকটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

রাজধানী বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনীর একটি ঘাঁটিতে দুটি রকেট হামলার ঘটনা ঘটেছে। অন্যদিকে বাগদাদের সুরক্ষিত গ্রিন জোনে মার্কিন দূতাবাসের কাছে আঘাত করেছে দুটি মর্টারের গোলা।

ইরাকি নিরাপত্তা সূত্র বলছে, এসব হামলায় কেউ হতাহত হয়নি। অপরদিকে ইরানের নেতারা কাসেম সোলেইমানির হত্যার প্রতিশোধের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে উত্তেজনা কমানোর কোনো চেষ্টা না করে বরং হামলার হুমকি দিয়ে টুইট করেছেন ট্রাম্প।

এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প ইরানকে হুমকি দিয়ে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ৫২ স্থানকে টার্গেট করেছে। এর মধ্যে কিছু ইরানের প্রথম সারির এবং খুবই গুরুত্বপূর্ণ স্থান। এগুলো ইরানের সংস্কৃতি এবং ইরানিদের কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ। এসব স্থানে খুব দ্রুত ভয়াবহ হামলা চালানো হবে।

ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আর কোনো হুমকি চায় না। তিনি আরও বলেন, ১৯৭৯ সালের নভেম্বরে তেহরানে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস থেকে ৫২ জন আমেরিকানকে জিম্মি করা হয়েছিল। তারা ৪৪৪ দিন বন্দি ছিলেন। ওই ৫২ জনের কথা স্মরণ করেই ইরানের ৫২ স্থানকে টার্গেট করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

YouTube
Pinterest
LinkedIn
Share
Instagram
WhatsApp
FbMessenger
Tiktok