আড়াই কোটি মানুষকে ভাতা পৌঁছে দিয়েছে ‘নগদ’

স্টাফ রিপোর্ট

ডাক বিভাগের মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস অপারেটর ‘নগদ’ সরকারের হয়ে গত এক বছরের কিছু বেশি সময়ে আড়াই কোটিরও বেশি মানুষকে সাত কোটিবার বিভিন্ন ভাতা ও সহায়তা পৌঁছে দিয়েছে।

শনিবার টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক, বাংলাদেশ (টিআরএনবি) আয়োজিত এক ওয়েবিনারে এ তথ্য জানিয়েছেন নগদের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক।

তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘এটি আমাদের জন্য অবশ্যই বড় একটি অর্জন। কারণ কোভিডের মতো এমন জরুরি একটি সময়ে মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস ছাড়া হয়তো এত বড় অংশের কাছে এত সহজে ভাতা পৌঁছে দেয়া যেত না।’

তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘আজ দুই বছর পর এসে অন্তত এতটুকু বলতে পারি, আমাদের যে লক্ষ্য তার খুব কাছাকাছি পৌঁছানো গেছে। নগদ একটি সরকারি সেবা হওয়ায় অন্য আরেকটি সরকারি সংস্থাও নগদের ওপর আস্থা রাখছে এবং সহজেই তাদের ভাতা, সহায়তা ও অনুদান বিতরণ করতে পারছে। একই সঙ্গে প্রযুক্তিগতভাবেও আমরা এতটাই নিজেদের তৈরি করেছি যে, মোবাইল ফোনে আর্থিক লেনদেনে পৃথিবীর যেকোনো সেরা কোম্পানির সঙ্গেও ‘নগদ’-এর তুলনা হতে পারে।’

এর আগে মূল প্রবন্ধে টিআরএনবির সাধারণ সম্পাদক সমীর কুমার দে বলেন, আগে যেখানে মোবাইলের মাধ্যমে টাকা পাঠাতে সরকারকে হাজারে ২২ টাকা করে খরচ হতো, সেটি এখন ৭ টাকায় নামিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

অনুষ্ঠানে আলোচক হিসেবে ছিলেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহম্মেদ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু ও সমাজসেবা অধিদফতরের মহাপরিচালক শেখ রফিকুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন টিআরএনবির সভাপতি রাশেদ মেহেদী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *