আর্থিক ও ব্যাংক খাতে লেনদেন ১৩০০ কোটি টাকা

স্টাফ রিপোর্ট

সূচক ও লেনদেনে নতুন রেকর্ড গড়েছে দেশের পুঁজিবাজার। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স প্রায় দশমিক ৭৩ শতাংশ বেড়ে ৬ হাজার ৭৪৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। পাশাপাশি প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা হয়েছে লেনদেনও। গতকাল পুঁজিবাজারে লেনদেনের শীর্ষে ছিল বস্ত্র, আর্থিক ও ব্যাংক খাত। এই তিন খাতে ১ হাজার ২৯৯ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, গতকাল লেনদেন শুরুর পর থেকে সূচক নিম্নমুখী ছিল। এর কিছু সময় পর সূচকের সামান্য ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা লক্ষ করা যায়। এরপর আবার উত্থান ও পতনের মাধ্যমে উত্থান অবস্থায় লেনদেন শেষ হয়। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪৯ দশমিক ৫৩ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৭৪৮ দশমিক ৯২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, যা এর আগের কার্যদিবসে ছিল ৬ হাজার ৬৯৯ দশমিক ৩৯ পয়েন্টে। গতকাল সূচকের উত্থানে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা ছিল আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, কেয়া কসমেটিকস লিমিটেড, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সামিট পাওয়ার লিমিটেড, বিডি ফাইন্যান্স, সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড, আইডিএলসি লিমিটেড ও খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেডের।

এদিকে ডিএসইর শরিয়াহ সূচক ডিএসইএস গতকাল দিন শেষে ৯ দশমিক ৭৯ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৪৬৮ দশমিক ৮৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে, যা আগের দিন ছিল ১ হাজার ৪৫৯ দশমিক শূন্য ৩ পয়েন্টে। ব্লু-চিপ সূচক ডিএস-৩০ দিনের ব্যবধানে দশমিক শূন্য ৫ পয়েন্ট বেড়ে গতকাল ২ হাজার ৪২৭ দশমিক ৬২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, আগের দিন শেষে যা ছিল ২ হাজার ৪২৭ দশমিক ৫৭ পয়েন্টে। গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৯৫৩ কোটি ৯২ লাখ ৬৯ হাজার টাকা। যা আগের কার্যদিবসে ছিল ২ হাজার ৬৬১ কোটি ৭০ লাখ ১১ হাজার টাকা। এদিন ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৭৫টি কোম্পানি, মিউচুয়াল ফান্ড ও করপোরেট বন্ডের মধ্যে দিন শেষে দর বেড়েছে ২০৪টির, কমেছে ১৪৬টির আর অপরিবর্তিত ছিল ২৫টি সিকিউরিটিজের বাজারদর।

খাতভিত্তিক লেনদেনচিত্রে দেখা যায়, গতকাল ডিএসইর মোট লেনদেনের ১৮ শতাংশ দখলে নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে বস্ত্র খাত। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৬ শতাংশ দখলে নিয়েছে আর্থিক খাত। ১১ শতাংশ লেনদেনের ভিত্তিতে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রকৌশল খাত। ১০ শতাংশ লেনদেনের ভিত্তিতে চতুর্থ অবস্থানে ছিল ব্যাংক খাতর। আর ৯ শতাংশ লেনদেনের ভিত্তিতে পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে ওষুধ ও রসায়ন খাত।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষ সিকিউরিটিজ ছিল বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি (বেক্সিমকো) লিমিটেড, আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেড, ওরিয়ন ফার্মা, অ্যাপোলো ইস্পাত, ইসলামিক ফাইন্যান্স, মালেক স্পিনিং, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, এমএল ডায়িং ও জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেড।

গতকাল এক্সচেঞ্জটিতে দরবৃদ্ধির শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হচ্ছে ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্স, স্টাইলক্রাফট, সাউথবাংলা ব্যাংক, জাহিনটেক্স, খুলনা পাওয়ার, সাফকো স্পিনিং, ইউনাইটেড ফাইন্যান্স, ড্রাগন সোয়েটার, জাহিন স্পিনিং ও রিং শাইন।

অন্যদিকে ডিএসইতে গতকাল সবচেয়ে বেশি দর কমেছে সোনালী পেপার ৬ দশমিক ৪৯ শতাংশ, প্রগ্রেসিভ লাইফ ইন্স্যুরেন্স ৫ দশমিক ৩৩ শতাংশ, মিরাকল ইন্ডাস্ট্রিজ ৪ দশমিক ৮৬ শতাংশ, সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স ৪ দশমিক ৬৮ শতাংশ, রহিমা ফুড ৪ দশমিক ৬৫ শতাংশ, প্রগতি ইন্স্যুরেন্স ৪ দশমিক ৬২ শতাংশ, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স ৪ দশমিক ৪১ শতাংশ, সিএপিএম আইবিবিএল মিউচুয়াল ফান্ড ৪ দশমিক ২৮ শতাংশ, ফিনিক্স ইন্স্যুরেন্স ৪ দশমিক ২৬ শতাংশ ও কপারটেক ৪ দশমিক ২৪ শতাংশ।

দেশের আরেক পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গতকাল সিএসসিএক্স সূচক দিনের ব্যবধানে ৭৫ দশমিক ৫৪ পয়েন্ট কমে ১১ হাজার ৭৭৭ দশমিক ৬০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আগের কার্যদিবসে সূচকটির অবস্থান ছিল ১১ হাজার ৭০২ দশমিক শূন্য ৬ পয়েন্টে। এদিন এক্সচেঞ্জটিতে লেনদেন হওয়া ৩২০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৭০টির, কমেছে ১২৬টির আর অপরিবর্তিত ছিল ২৪টির বাজারদর। গতকাল সিএসইতে মোট ১১৬ কোটি ২২ লাখ ৮ হাজার ৯১২ টাকার সিকিউরিটিজ হাতবদল হয়েছে, আগের কার্যদিবসে যা ছিল ৮৯ কোটি ৯৩ লাখ ৭৭ হাজার ৪৮০ টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *