আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের উদ্বৃত্ত কমার আশঙ্কা

স্টাফ রিপোর্টার

চলতি বছর আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের সরবরাহ প্রত্যাশার চেয়ে কমার আশঙ্কা করছে রফতানিকারক দেশগুলোর মিত্র জোট ওপেক প্লাস। জোটের একটি সূত্র সম্প্রতি এ তথ্য জানিয়েছে।

ওপেক প্লাসের জয়েন্ট টেকনিক্যাল কমিটির নতুন একটি প্রতিবেদনে দেখা গিয়েছে, চলতি বছর বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের উদ্বৃত্ত করার পূর্বাভাস দিয়েছে জোট। পূর্বাভাসে দৈনিক উদ্বৃত্তের পরিমাণ দুই লাখ ব্যারেল করে কমানো হয়েছে। মোট উদ্বৃত্ত দাঁড়াবে দৈনিক আট লাখ ব্যারেল।

উত্তোলন নীতিমালাবিষয়ক বৈঠকে বসতে যাচ্ছে জোটটি। সংশ্লিষ্টদের ধারণা, আগামী মাসেও বিদ্যমান নীতিতেই উত্তোলন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেবে ওপেক প্লাস। তবে উত্তোলন কিছুটা বাড়ানোর সম্ভাবনাও রয়েছে। গত জুনে জ্বালানি তেল উত্তোলনে ব্যাপক ঘাটতির মুখে পড়ে ওপেক প্লাস। প্রকৃত উত্তোলন ও লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে ব্যবধান দাঁড়ায় দৈনিক ২৮ লাখ ৪০ হাজার ব্যারেলে।

বিশ্ববাজারে সংকট মোকাবেলায় প্রতি মাসে নির্দিষ্ট মাত্রায় উত্তোলন বাড়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ওপেক প্লাস। কিন্তু যতই উত্তোলন বাড়ানোর পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে, ততই জোটটির সদস্য দেশগুলো বেঁধে দেয়া উত্তোলন কোটা পূরণে ব্যর্থ হচ্ছে। এর মূল কারণ সরবরাহ খাতে বিনিয়োগ ও সক্ষমতার অপ্রতুলতা।

আরগাসের সমীক্ষা অনুযায়ী, জুনে ওপেক প্লাস প্রতিদিন ২৫ লাখ ব্যারেলেরও বেশি অপরিশোধিত জ্বালানি তেল উত্তোলন করেছে, যা জোটের লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় কম।

Leave a Reply

Your email address will not be published.