অনুমোদন পেল ভোলা সেতু নির্মাণ প্রস্তাব

পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) ভিত্তিতে তেঁতুলিয়া ও কালাবদর নদীর উপর দিয়ে বরিশাল-ভোলা সড়কে ভোলা সেতু নির্মাণে নীতিগত সায় দিয়েছে সরকার। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে সেতু বিভাগ।

বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল দেশের বাইরে থাকায় কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ভার্চুয়াল সভায় এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবে নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়। সভায় কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা যুক্ত ছিলেন।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. আবু সালেহ্ মোস্তফা কামাল ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) ভিত্তিতে তেঁতুলিয়া ও কালাবাদর নদীর উপর দিয়ে বরিশাল-ভোলা সড়কে ভোলা সেতু নির্মাণে নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

সেতু বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, দুই নদীর (তেঁতুলিয়া ও কালাবাদর) উপরে ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতু নির্মাণে আনুমানিক ১২ হাজার ৯১৬ কোটি টাকা ব্যয় হবে। দুই নদীর মাঝখানে চর থাকায় চার কিলোমিটার ভায়াডাক নির্মাণ করা হবে।

পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ এগিয়ে চলছে এবং ২০২১ সালে এটি শেষ হবে বলে আশা সরকারের। প্রস্তাবিত ভোলা সেতুর প্রভাব পদ্মা সেতুর মাধ্যমে আরও জোরদার করা হবে। প্রস্তাবিত সেতু বাস্তবায়নের পরে ভোলা জেলা সরাসরি পদ্মা সেতুর মধ্য দিয়ে রাজধানী ঢাকার সাথে যুক্ত হবে। প্রস্তাবিত ভোলা সেতুটি নির্মাণ করা গেলে পদ্মা সেতুর সুবিধা আরও বাড়বে বলে মনে করছে সরকার।

কমিটির বৈঠকের পরই সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় বসুন্ধরা অয়েল অ্যান্ড গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের (বিওজিসিএল) অধীন বসুন্ধরা বিটুমিন/অ্যাসফল্ট প্রোডাকশন প্ল্যান্টের টেস্ট রানের জন্য জি-টু-জি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে কোটেশনের মাধ্যমে ৬৫ হাজার টন বিটুমিনাস ক্রুড অয়েল আমদানির প্রিমিয়াম ও মূল্য (রেফারেন্স প্রাইস অনুযায়ী) বিবেচনা এবং অনুমোদন দেয়া হয়। এতে ব্যয় হবে ১৯৬ কোটি ৫২ লাখ টাকা।

এছাড়া ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া-পাকশী-দাশুরিয়া জাতীয় মহাসড়কের (এন-৭০৪) কুষ্টিয়া শহরাংশ চার লেনে উন্নীতকরণসহ অবশিষ্টাংশ যথাযথ মানে উন্নীতকরণ শীর্ষক প্রকল্পের কয়েকটি প্যাকেজে কাজের ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়। স্পেকট্রা ইঞ্জিনিয়ারিং এ কাজ পেয়েছে এবং এ খাতে ব্যয় হবে ১৪৭ কোটি ৮৫ লাখ ৮৪ হাজার টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *