৬০ হাজার কর্মী ছাঁটাই করেছে চীনের টিউটরিং ফার্ম

স্টাফ রিপোর্টার

চীনের টিউটরিং ফার্ম খাতটি বেশ জনপ্রিয়। মূলত বেসরকারিভাবে শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষক নিয়োগ, সহায়ক পড়ালেখার জন্য খাতটি বেশ পরিচিত ও লাভজনক। কিন্তু গত বছর বেসরকারি শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য নতুন নিয়ম করে চীন সরকার। যেখানে তাদের বাধ্যতামূলকভাবে অলাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করতে বলা হয়। এতে শত-হাজার কোটি ডলারের খাতটিতে রীতিমতো ধস নেমেছে। খবর ফ্রি মালয়েশিয়াটুডে।

দেশটির সবচেয়ে বড় টিউটরিং ফার্ম নিউ ওরিয়েন্টাল এডুকেশন অ্যান্ড টেকনোলজি জানিয়েছে, সরকারের এ সিদ্ধান্তের পর এক বছরে অন্তত ৬০ হাজার কর্মী ছাঁটাই করেছে সংস্থাটি। সেই সঙ্গে আয় কমেছে ৮০ শতাংশ। হংকং পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত এ প্রতিষ্ঠানটির বাজারমূল্য কমেছে ৯০ শতাংশ।

প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ইউ মিনহং বলেন, ২০২১ সালে নিউ ওরিয়েন্টালকে অনেক ধরনের পরিবর্তনের মুখোমুখি হতে হয়েছে। রাষ্ট্রীয় কিছু নিয়ম নীতির কারণে আমাদের ব্যবসায় পরিবর্তন আনতে হয়েছে। তার সঙ্গে ছিল মহামারী ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে সম্পর্ক ও অন্যান্য কারণ। এরপর থেকেই প্রতিষ্ঠানটি অনলাইন ও অফলাইনে পড়ানোর বেশির ভাগ কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। তবে বিপুলসংখ্যক কর্মী ছাঁটাইয়ের পরও নিউ ওরিয়েন্টালের এ মুহূর্তে কর্মী ও শিক্ষক সংখ্যা প্রায় ৫০ হাজার।

চীন সরকারের এ নিয়ম আরোপের কারণ হিসেবে বলা হয়েছিল, দেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় শিক্ষার্থীদের ওপর থেকে চাপ কমাতে চায় সরকার। আর সে কারণেই এসব প্রতিষ্ঠান যেন অর্থের বিনিময়ে শিক্ষার্থীদের অতিরিক্ত চাপের মুখে না ফেলে সেটি নিশ্চিত করতেই এ সিদ্ধান্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

YouTube
Pinterest
LinkedIn
Share
Instagram
WhatsApp
FbMessenger
Tiktok