সর্বোচ্চে ভারতের চা রফতানি

0
10
চা রফতানি
চা রফতানি

চা উৎপাদনকারী ও রফতানিকারক দেশগুলোর তালিকায় ভারতের অবস্থান বিশ্বে দ্বিতীয়। ২০১৭ সালে দেশটির চা উৎপাদন খাতকে নানামুখী সংকট মোকাবেলা করতে হয়েছে। এর পরও গত বছর দেশটি থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে পানীয় পণ্যটির রফতানি আগের বছরের তুলনায় ৮ শতাংশের বেশি বেড়েছে। এ সময় ভারত থেকে চা রফতানি ৩৬ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছেছে। টি বোর্ড অব ইন্ডিয়ার (টিবিআই) সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। খবর বিজনেস লাইন ও ইকোনমিক টাইমস।

টিবিআইয়ের প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৭ সালে ভারতে থেকে সবমিলে ২৪ কোটি ৬ লাখ ৮০ হাজার কেজি চা রফতানি হয়েছে, যা আগের বছরের তুলনায় ৮ দশমিক ২ শতাংশ বেশি। ২০১৬ সালে ভারত থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে মোট ২২ কোটি ২৪ লাখ ৫০ হাজার কেজি চা রফতানি হয়েছিল। সে হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে দেশটি থেকে চা রফতানি বেড়েছে প্রায় ১ কোটি ৮২ লাখ ৩০ হাজার কেজি। এ সময় চা রফতানি বাবদ ভারতের আয়ও বেড়েছে। এর আগে ১৯৮১ সালে ভারত থেকে চা রফতানির পরিমাণ ইতিহাসের সর্বোচ্চে পৌঁছেছিল। এ সময় দেশটি থেকে মোট ২৪ কোটি ১২ লাখ ৫০ হাজার কেজি চা রফতানি হয়েছিল। সে হিসাবে গত বছর ভারত থেকে ১৯৮১ সালের রেকর্ডের তুলনায় প্রায় ৫ লাখ ৬৮ হাজার কেজি কম চা রফতানি হয়েছে।

এদিকে ২০১৭ সালে পানীয় পণ্যটির রফতানি বাবদ দেশটি সবমিলে ৪৭৩ কোটি ১৬ লাখ ৬০ হাজার রুপি আয় করেছে, যা আগের বছরের তুলনায় ৫ দশমিক ৯ শতাংশ বেশি। ২০১৬ সালে চা রফতানি বাবদ ভারতে আয় দাঁড়িয়েছিল ৪৪৬ কোটি ৮১ লাখ ১০ হাজার রুপি।

সে হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে চা রফতানি বাবদ ভারতের আয় বেড়েছে প্রায় ২৬ কোটি ৩৫ লাখ ৫০ হাজার রুপি। ভারত থেকে গত বছর সবচেয়ে বেশি চা রফতানি হয়েছে রাশিয়ায়। এ সময় দেশটিতে মোট ৪ কোটি ৪১ লাখ ৩০ হাজার কেজি চা রফতানি করেছে ভারত, যা আগের বছরের তুলনায় ৪ লাখ ৮৯ হাজার কেজি কম। ২০১৭ সালে ভারত থেকে চায়ের রফতানি গন্তব্যের তালিকায় এর পরই রয়েছে যথাক্রমে ইরান, সংযুক্ত আরব আমিরাত, পাকিস্তান, ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্র।

এদিকে ২০১৭ সালে ভারত থেকে বাংলাদেশে সবমিলে প্রায় ২৩ লাখ কেজি চা রফতানি হয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে টিবিআই। ২০১৬ সালে দেশটি থেকে বাংলাদেশে মোট ৮৭ লাখ কেজি চা রফতানি হয়েছিল। সে হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে ভারত থেকে বাংলাদেশের বাজারে চা রফতানি কমেছে প্রায় ৬৪ লাখ কেজি। এ সময় বাংলাদেশে চা রফতানি বাবদ ভারতের আয় দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৮৩ লাখ ২০ হাজার রুপি। ভারত এর আগের বছর বাংলাদেশে চা রফতানি করে ৮ কোটি ৬০ লাখ ৯০ হাজার রুপি আয় করেছিল বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। সে হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে বাংলাদেশের বাজারে চা রফতানি বাবদ ভারতের আয় কমেছে প্রায় ৫ কোটি ৭৭ লাখ ৭০ হাজার রুপি।

যারা অনলাইন থেকে টাকা উপার্জন করতে চান তাদের জন্য এই ভিডিও

উত্তর দিন