রোলস-রয়েসের রেকর্ডসংখ্যক গাড়ি বিক্রি

স্টাফ রিপোর্টার

মহামারীতে বেড়েছে ধনীদের সম্পদের পরিমাণ। অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে বিনিয়োগকারীদের আত্মবিশ্বাস বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শেয়ারদর বাড়িয়ে দিয়েছে। ফলে মহামারীতেও ধনীদের সম্পদে লাখ লাখ ডলার যুক্ত হয়েছে। এ অবস্থায় রেকর্ডসংখ্যক গাড়ি বিক্রি করেছে রোলস-রয়েস। ব্রিটিশ বিলাসবহুল গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির ভাষ্য, মহামারীতে ধনীরা উপলব্ধি করেছে যে জীবন অনেক ছোট। এ কারণে তারা গাড়ি কিনতে কার্পণ্য করেনি।

দ্য গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে, ২০২১ সালে ৫ হাজার ৫৮৬ ইউনিট গাড়ি বিক্রি করেছে রোলস-রয়েস। এ সংখ্যা সংস্থাটির ১১৭ বছরের ইতিহাসে সর্বোচ্চ বার্ষিক বিক্রি।

গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী টর্স্তেন মুলার-ওতভস বলেন, মহামারীটি গ্রাহকদের গাড়ি কিনতে উৎসাহিত করেছিল। বিশেষ করে যাদের গড় বয়স ৪৩ বছর ছিল, তারা বিলাসবহুল গাড়ি কিনতে কার্পণ্য করেনি। কারণ অনেক লোক কভিডে সংক্রমিত হয়ে মারা যেতে দেখেছিল। এটি তাদের মনে করিয়ে দিয়েছে যে জীবন অনেক ছোট হতে পারে। সুতরাং তারা উপলব্ধি করেছে, গাড়ি কেনার তারিখ পেছানোর পরিবর্তে এখনই কেনা উচিত।

বিএমডব্লিউর মালিকানাধীন গাড়ি নির্মাতাটি জানিয়েছে, সংস্থার বিক্রি বাড়ার আরেকটি কারণ হলো মহামারীটি ধনী গ্রাহকদের অর্থ অন্যত্র ব্যয় করার ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করেছিল। এ কারণে মহামারীতে বিশ্বজুড়ে বিলাসবহুল ব্যবসা বিস্তৃত হয়েছে। টর্স্তেন মুলার-ওতভস বলেন, লোকেরা খুব বেশি ভ্রমণ এবং বিলাসবহুল পরিষেবাগুলো অনেক বেশি ব্যয় করতে পারেননি। এজন্য বিলাসবহুল পণ্যগুলোয় ব্যয়ের জন্য তাদের হাতে প্রচুর অর্থ জমা হয়েছে।

অস্বাভাবিক প্রবণতা হিসেবে প্রতিটি দেশেই রোলস-রয়েসের গাড়ি বিক্রি বেড়েছে। সংস্থাটির সবচেয়ে বেশি বিক্রীত গাড়ি হলো ফ্যান্টম মডেল। পাশাপাশি কুলিনানা এসইউভি ২০২১ সালে মোট বিক্রির ৩০ শতাংশ ছিল। ২০৩০ সালের মধ্যে সংস্থাটি কেবল বিদ্যুচ্চালিত গাড়ি নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছে। সংস্থাটির প্রথম সম্পূর্ণ বিদ্যুচ্চালিত গাড়ি স্পেকট্রা ২০২৩ সালে সরবরাহ করা হবে বলে জানিয়েছে রোলস-রয়েস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

YouTube
Pinterest
LinkedIn
Share
Instagram
WhatsApp
FbMessenger
Tiktok