ব্যাংকগুলোকে রেমিট্যান্সে প্রণোদনা বৃদ্ধির খবর প্রচারের পরামর্শ

স্টাফ রিপোর্টার

বৈধ উপায়ে দেশে রেমিট্যান্স পাঠাতে উৎসাহিত করতে প্রণোদনা হার জানুয়ারি থেকে আড়াই শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে। এ খবর প্রতিটি শাখায় পৌঁছে দেওয়ার জন্য ব্যাংকগুলোকে প্রক্রিয়া জোরদার করার পরামর্শ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) নতুন কমিটির সঙ্গে সাক্ষাতের সময় এই পরামর্শ দেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির।

বৈঠকে রেমিট্যান্স সংগ্রহ নিয়ে কথা হয়। এবিবি বাংলাদেশ ব্যাংককে জানায়, ব্যাংকগুলোকে ভিন্ন ভিন্ন রেটে (হারে) এক্সচেঞ্জ হাউজগুলো থেকে রেমিট্যান্স সংগ্রহ করতে হয়। ব্যাংকভেদে ৮৬ থেকে ৮৮ টাকার বেশি দরে রেমিট্যান্স সংগ্রহ করতে হয়। ডলারের দাম বাড়লে সমস্যাটি বেশি দেখা দেয়, ক্ষতিগ্রস্ত হয় ব্যাংক। সমস্যা সমাধানে রেমিট্যান্স সংগ্রহে টাকার হার নির্দিষ্ট করার সুপারিশ করে এবিবি।

জবাবে বাংলাদেশ ব্যাংক জানায়, এবিবি ও বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশন বসা উচিত। সবার পরামর্শক্রমে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে বাংলাদেশ ব্যাংক সহযোগিতা করবে।

প্রবাসীদের রেমিট্যান্স বৈধ উপায়ে দেশে পাঠানোকে উৎসাহিত করতে চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে বিদ্যমান ২ শতাংশ নগদ সহায়তার হার বাড়িয়ে ২ দশমিক ৫ শতাংশ করেছে সরকার। ২০১৯-২০ অর্থবছরে রেমিট্যান্সের বিপরীতে ২ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা প্রদানের সিদ্ধান্ত হয়। এর ফলে ব্যাংকিং চ্যানেলে অর্থ পাঠানোর পরিমাণ ২০১৯-২০ অর্থবছরে বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়ায় ১৮ দশমিক ২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে। যা তার পূর্ববর্তী অর্থবছরের তুলনায় ১৩ শতাংশ বেশি। ২০২০-২১ অর্থবছরে রেমিট্যান্স আহরণের পরিমাণ ছিল ২৪ দশমিক ৮০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা ২০১৯-২০ অর্থবছরের তুলনায় ৩৬ শতাংশ বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.