ফের বৈঠকে বসছে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক

দেড় হাজার কোটি টাকা

0
10
পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক
পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক

বেসরকারি খাতের ব্যাংক এশিয়া, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি) ও বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকে জমা থাকা পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের দেড় হাজার কোটি টাকা আদায়ের অগ্রগতি জানতে চেয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়। পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে ৩ জানুয়ারি পাঠানো এক পত্রে এ অগ্রগতি জানতে চাওয়া হয়েছে। চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে অর্থ আদায়ে তিন ব্যাংকের সঙ্গে আবারো বৈঠকে বসছে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক।

সারা দেশে বিস্তৃত ‘একটি বাড়ি একটি খামার’ প্রকল্পের প্রায় ২৫ লাখ সদস্যের সঞ্চয়ের টাকা জমা হয়েছে বেসরকারি তিনটি এজেন্ট ব্যাংকে। ২০০৯ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের নভেম্বর পর্যন্ত ব্যাংক এশিয়া, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি) ও বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকে জমার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৪৮৩ কোটি টাকা। পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক এ অর্থ চাইলে গতকাল পর্যন্ত ব্যাংক তিনটি ফেরত দিয়েছে ২১৫ কোটি টাকা। বাকি অর্থও যাতে দ্রুত ফেরত পাওয়া যায়, সে লক্ষ্যে ব্যাংক তিনটির সঙ্গে বৈঠকে বসতে যাচ্ছে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক।

একটি বাড়ি একটি খামার
একটি বাড়ি একটি খামার

আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. ইউনুসুর রহমান এ প্রসঙ্গে বলেন, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের এজেন্ট ব্যাংক হিসেবে কাজ করা তিনটি ব্যাংককে নিয়ে এর আগে আমরা বৈঠক করেছি। ডিসেম্বরে ব্যাংকগুলোর বার্ষিক হিসাবায়নের চাপ থাকায় হয়তো পুরো টাকা পল্লী সঞ্চয় ব্যাংককে ফেরত দিতে পারেনি। আশা করছি, দ্রুতই তারা এ টাকা সোনালী ব্যাংকের হিসাবে জমা দিয়ে দেবে। তবে বিষয়টি নিয়ে এরপর আমি আর বসব না। পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক অন্য তিন ব্যাংকের সঙ্গে বৈঠক করে টাকা হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে।

এর আগে গত ১৯ অক্টোবর বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকের কার্যবিবরণীর ৭ অনুচ্ছেদে বলা হয়, ‘এ-যাবত্ ১৪৮টি উপজেলায় পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক অনলাইন লেনদেনে সফটওয়্যার চালু করেছে, যা ডিসেম্বর ২০১৭-এর মধ্যে সব উপজেলায় চালু হবে। কিন্তু প্রকল্পের সঙ্গে অনলাইন ব্যাংকিং সেবা প্রদানে সহযোগী ব্যাংক যথাক্রমে ব্যাংক এশিয়া, ইউসিবি ও বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক প্রকল্পের আওতায় গঠিত সমিতিগুলোর নগদ গচ্ছিত তহবিল পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে স্থানান্তর না করায় পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক উপকারভোগী সদস্যদের ঋণ প্রদান করতে পারছে না। ফলে দারিদ্র্য বিমোচন কর্মসূচি ব্যাহত হচ্ছে।’

তবে দ্রুতই তিন ব্যাংকের কাছ থেকে টাকা ফেরত পাওয়া যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) আকবর হোসেন। ব্যাংক তিনটি থেকে টাকা স্থানান্তর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সূত্রমতে, ব্যাংক এশিয়া, ইউসিবি ও বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকে জমা হওয়া প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকার বিপরীতে মাত্র ২ শতাংশ সুদ পরিশোধ করা হচ্ছে। অথচ পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের ৯৮ কোটি ৫০ লাখ টাকা সরকারি-বেসরকারি চারটি ব্যাংকে অনেক বেশি সুদে মেয়াদি আমানত হিসেবে রাখা হয়েছে। এর মধ্যে এক মাস মেয়াদে ব্র্যাক ব্যাংকের কারওয়ান বাজার শাখায় ৫ শতাংশ সুদে রয়েছে ২০ কোটি টাকা। এক্সিম ব্যাংকের গুলশান শাখায় তিন মাস মেয়াদে ১২ কোটি টাকা রয়েছে সাড়ে ৬ শতাংশ সুদে। এছাড়া সাড়ে ৫ শতাংশ সুদে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের তাজমহল রোড শাখায় ৩০ কোটি ও সোনালী ব্যাংকের মগবাজার শাখায় সাড়ে ৩০ কোটি টাকা তিন মাস মেয়াদি আমানত রেখেছে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক।

যারা অনলাইন থেকে টাকা উপার্জন করতে চান তাদের জন্য এই ভিডিও

উত্তর দিন