ঊর্ধ্বমুখী ছোলার বাজার

0
6
ছোলা
ছোলা

প্রতি বছর রোজার মাসে দেশের বাজারে ছোলার চাহিদা বাড়ে। আমদানির মাধ্যমে খাদ্যপণ্যটির বাড়তি চাহিদা সামাল দেন দেশীয় ব্যবসায়ীরা। এবারও এর ব্যতিক্রম ছিল না। তবে ঈদের পর থেকে ছোলা আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। এর জের ধরে বাজারে ছোলার সরবরাহ সংকট দেখা দিয়েছে। দেশে ভোগ্যপণ্যের বৃহত্তম পাইকারি বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে পণ্যটির দাম এক সপ্তাহের ব্যবধানে মণপ্রতি সর্বোচ্চ ২৫০ টাকা বেড়েছে। ছোলার মূল্যবৃদ্ধির পেছনে আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়তি দাম ও আমদানি কমাকে দায়ী করেছেন খাতসংশ্লিষ্টরা।

খাতুনগঞ্জ বাজারে গতকাল অস্ট্রেলিয়া থেকে আমদানি করা প্রতি মণ (৩৭ দশমিক ৩২ কেজি) ভালো মানের ছোলা ২ হাজার ৯৩০ থেকে ২ হাজার ৯৫০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা যায়। এক সপ্তাহ আগেও পণ্যটির দাম ছিল মণপ্রতি ২ হাজার ৭০০ থেকে ২ হাজার ৭২০ টাকা। এদিকে গতকাল অস্ট্রেলিয়া থেকে আমদানি করা কিছুটা নিম্নমানের ছোলা মণপ্রতি বিক্রি হয় ২ হাজার ৭০০ থেকে ২ হাজার ৭৫০ টাকায়। এক সপ্তাহ আগেও পণ্যটির দাম ছিল মণপ্রতি ২ হাজার ৫০০ থেকে ২ হাজার ৫৫০ টাকা। সেই হিসাবে এক সপ্তাহের ব্যবধানে ভালো ও কিছুটা নিম্নমানের ছোলার দাম মণপ্রতি সর্বোচ্চ ২৫০ টাকা বেড়েছে। পাইকারি বাজারের দাম বৃদ্ধির প্রভাব পড়েছে চট্টগ্রামের খুচরা বাজারেও। গতকাল স্থানীয় বাজারে খুচরা পর্যায়ে প্রতি কেজি ছোলা বিক্রি হয় ৮৫-৯০ টাকায়। এক সপ্তাহ আগেও পণ্যটি কেজিপ্রতি ৭৫-৮০ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। সেই হিসাবে খুচরা বাজারে পণ্যটির দাম কেজিতে সর্বোচ্চ ১০ টাকা বেড়েছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ী মোহাম্মদ সেলিম জানান, রোজার মাসে দেশের বাজারে বাড়তি চাহিদার কারণে অস্ট্রেলিয়া ও মিয়ানমার থেকে ছোলা আমদানি করা হয়েছিল। তবে রোজার পর অভ্যন্তরীণ চাহিদা কমে আসায় মিয়ানমার থেকে পণ্যটির আমদানি বন্ধ রয়েছে। এর জের ধরে বাজারে ছোলার সরবরাহ সংকট দেখা দিয়েছে। বিগত এক মাসে দুই দফা পণ্যটির দাম বেড়েছে।

চট্টগ্রাম ডাল মিল মালিক সমিতির সভাপতি মহিউদ্দিন মহিম বলেন, চলতি বছরের প্রথম ভাগ থেকে আর্ন্তজাতিক বাজারে ছোলার দাম বাড়তি রয়েছে। এর জেরে দেশের বাজারেও পণ্যটির দাম বেড়ে যায়। দেশের বাজারে বছরে প্রায় দেড় লাখ টন ছোলার চাহিদা রয়েছে। তবে রোজার সময় অভ্যন্তরীণ চাহিদার তুলনায় বাড়তি ছোলা আমদানি হয়েছিল। এ কারণে খাদ্যপণ্যটির দাম খুব একটা বাড়েনি। পরবর্তী সময়ে আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়তি দামের কারণে দেশের খাদ্যপণ্য ব্যবসায়ী ও আমদানিকারকরা ছোলা আমদানিতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন। এর জেরে পণ্যটির আমদানি ব্যাপক পরিমাণে কমেছে। ছোলার সরবরাহ সংকটের জের ধরে বেড়েছে দাম। আগামী দিনগুলোয় আমদানি বৃদ্ধির মাধ্যমে সরবরাহ বাড়াতে না পারলে দেশের পাইকারি ও খুচরা উভয় বাজারেই ছোলার দাম তুলনামূলক বেশি থাকবে বলে মনে করেন এ ব্যবসায়ী নেতা।

উত্তর দিন